The Business Post
বুধবার, অক্টোবর ২০, ২০২১

প্রচ্ছদ খেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০ অক্টোবর ২০২১ ১১:৫৪:১২

শেষ ম্যাচে হারলো বাংলাদেশ

শেষ ম্যাচে হারলো বাংলাদেশ

পঞ্চম ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে টাইগারদের ২৭ রানে হারিয়ে ৩-২ ব্যবধানে সিরিজ শেষ করেছে নিউজিল্যান্ড। শুরুতে ব্যাট করতে এসে বাংলাদেশের সামনে বড় পুঁজি দাঁড় করাতে সক্ষম হয় নিউজিল্যান্ড। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার দিনে তা ধারে কাছেও যেতে পারেনি স্বাগতিকরা।

শুক্রবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরুতে ব্যাট করে নির্ধারিত ওভারে ১৬১ রান তোলে নিউজিল্যান্ড। জবাবে নির্ধারিত ওভারে ১৩৪ রান তোলে স্বাগতিকরা। ব্যাট হাতে ৪৯ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছেন আফিফ।

শুরুটা ভালো হয়নি টাইগারদের। মাত্র ২৬ রানের মাথায় নিজের উইকেট বিলিয়ে দেন ওপেনার লিটন দাস। ১২ বলে ১০ করে সাজঘরের পথ ধরেন তিনি। দলীয় ৩৬ রানের মাথায় ফেরান সৌম্য সরকার (৪)। খানিক সময়ের ব্যবধানে ২৩ রান করে ফেরেন আরেক ওপেনার নাঈম শেখ।

নবম ওভারের পঞ্চম বলে ৩ রান করে রাচীন রবিন্দ্রের শিকার হন মুশফিকুর রহিম। চার উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ার পর শক্ত হাতে দলকে টেনে তোলে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও আফিফ হোসেন ধ্রুব। এই যুগলের জুটিতে ৬৩ রানের জুটি ভাঙেন স্কট কুগেলেইন। ১৬তম ওভারের শেষ বলে ডিপ কাভার অঞ্চলে অ্যালেনের তালুবন্দি হন ২৩ রান করা রিয়াদ।

মাহমুদউল্লাহ ফেরার পরের ওভারেই বিপদে পড়ে স্বাগতিকরা। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে আসা নুরুল হাসান সোহানকে এলবিডব্লিউতে ফেরান অ্যাজাজ প্যাটেল। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের উপর আপিল করেও রক্ষা মিলেনি এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের। মাত্র ৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন তিনি। ১৮তম ওভারের শেষ বলে আটে নামা শামীম পাটোয়ারিকে ফেরান জ্যাকব ডাফি। স্লোয়ার বল আসার আগেই ব্যাট চালিয়ে দেন তিনি। বল তখন সরাসরি স্ট্যাম্পে আঘাত হানলে ২ রান করতে ফিরতে হয় তাকে।

এক পাশে একের পর এক উইকেট হারাতে থাকে বাংলাদেশ। অন্যপাশ আগলে রাখেন আফিফ হোসেন। তাতেই ম্যাচের আমূল কোনো পরিবর্তন আসেনি। তার অপরাজিত ৪৯ রানে ভর করে নির্ধারিত ওভারে ১৩৪ তোলে বাংলাদেশ। ২৭ রানের জয় পায় সফরকারীরা।

এর আগে, ব্যাট করতে এসে দারুণ শুরু করেন দুই কিউই ব্যাটসম্যান ফিন অ্যালেন ও রাচীন রবিন্দ্র। সিরিজে প্রথমবার পঞ্চম পার করে এই জুটি। ষষ্ঠ ওভারের তৃতীয় বলে রাচীনকে (১৭) ফেরান শরিফুল ইসলাম। একই ওভারে রিভিউ নিয়ে প্রথমবার রক্ষা পেলেও শেষ বলে ঠিকই অ্যালেনকে বোল্ড করেন এই পেসার। তাতেই ২৪ বলে ৪ চার ও তিন ছয়ে ৪১ করেন থামেন এই ব্যাটসম্যান।

দলীয় ৭১ রানের মাথায় আফিফ হোসেনের বলে কট বিহাইন্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন চারে আসা উইল ইয়াং। খানিক রানের ব্যবধানে কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমকে সাজঘরে ফেরান নাসুম। ১৭তম ওভারের দ্বিতীয় বলে হেনরি নিকোলসকে ফেরান তাসকিন আহমেদ। শট খেলতে গিয়ে বল ব্যাটে কানায় লেগে নুরুল হাসান সোহানের গ্লাভসবন্দি হলে ২১ রান করে ফেরেন এই ব্যাটসম্যান।

শেষের দিকে টম ল্যাথামের অপরাজিত পঞ্চাশ ও কোল ম্যাকনকিকের ১৭ রানে ভর করে ১৬১ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ দুটি উইকেট শিকার করেন মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম।